সালামের ফাযায়েল এবং গুরুত্ব

সালামের ফাযায়েল এবং গুরুত্ব

A PHP Error was encountered

Severity: Notice

Message: Trying to access array offset on value of type null

Filename: pages/article.php

Line Number: 26

Backtrace:

File: /home/darulazhar/public_html/myapplication/views/pages/article.php
Line: 26
Function: _error_handler

File: /home/darulazhar/public_html/myapplication/views/main_layout.php
Line: 9
Function: view

File: /home/darulazhar/public_html/myapplication/controllers/Article.php
Line: 62
Function: view

File: /home/darulazhar/public_html/index.php
Line: 315
Function: require_once

  18 April 2016   2101 Last Updated : 12:48 PM 18 April 2016

এক বিখ্যাত সাহাবী হযরত আবদুল্লাহ ইবনে সালাম রা এক হাদীসে নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের হিজরতের একটি সংক্ষিপ্ত চিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন এভাবে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন মদীনায় আগমন করলেন, বাঁধভাঙা স্রোতের মতোই মানুষ তাঁর দিকে ছুটতে শুরু করল। তারা বলাবলি করতে লাগল, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) চলে এসেছেন; রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) চলে এসেছেন। তাঁকে দেখার জন্যে মানুষের ভিড়ের মাঝে আমিও গেলাম। আমি তাঁর চেহারা দেখেই তাঁকে চিনতে পারলাম আর তখনি বুঝতে পারলাম এ চেহারা কোনো মিথ্যুকের চেহারা নয়।

সেদিন আমি তাঁকে প্রথম যে কথাটি বলতে শুনেছি তা হল-

হে মানুষেরা! তোমরা সালামের বিস্তার ঘটাও, মানুষকে খাবার খাওয়াও এবং যখন অন্য মানুষ ঘুমিয়ে থাকে তখন নামায পড়, তাহলে তোমরা শান্তিতে ও নির্বিঘে জান্নাতে যেতে পারবে। জামে তিরমিযী, হাদীস ২৪৮৫

 ইসলাম আমাদেরকে শিখিয়েছে- দুই মুসলমান যখন মিলিত হয় তখন যেন একে অন্যকে সালাম দেয় অর্থাৎ একজন বলবে, আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ- তোমার ওপর শান্তি ও আল্লাহর রহমত বর্ষিত হোক; অপরজন বলবে, ওয়া আলাইকুমুস সালামু ওয়ারাহমাতুল্লাহ তোমার ওপরও শান্তি ও আল্লাহর রহমত বর্ষিত হোক। এভাবে স্থান-কালের বন্ধন থেকে মুক্ত করে একে অন্যের জন্যে আল্লাহর রহমত ও শান্তি কামনা এর চেয়ে উত্তম শুভেচ্ছা আর কী হতে পারে!  এ সালাম আমাদের অহংকার, আমাদের স্বকীয়তা।

কেউ যখন কাউকে সালাম দেয়, তখন এর উত্তর দেয়া ওয়াজিব। এ আদেশ সরাসরি আল্লাহর

وَإِذَا حُيِّيتُمْ بِتَحِيَّةٍ فَحَيُّوا بِأَحْسَنَ مِنْهَا أَوْ رُدُّوهَا.

যখন তোমাদের সালাম দেয়া হয় তখন তোমরা এর চেয়ে উত্তম পন্থায় সালামের উত্তর দাও কিংবা (অন্তত) ততটুকুই বলে দাও। সূরা নিসা (৪) : ৮৬

হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর রা.-এর বর্ণনা, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে এক সাহাবী প্রশ্ন করলেন- ইসলামের শ্রেষ্ঠ আমল কোনটি?রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

تُطْعِمُ الطَّعَامَ وَتَقْرَأُ السَّلاَمَ عَلَى مَنْ عَرَفْتَ، وَعَلَى مَنْ لَمْ تَعْرِفْ.

তুমি মানুষকে খাবার খাওয়াবে আর তোমার পরিচিত-অপরিচিত সকলকেই সালাম দেবে। সহীহ বুখারী, হাদীস : ১২

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন :

الْبَادِئُ بِالسَّلَامِ بَرِيءٌ مِنَ الْكِبْرِ

যে আগে সালাম দেয় সে অহংকার থকে মুক্ত।  বায়হাকী, হাদীস ৮৪০৭

সালাম : আমাদের স্বকীয়তা

মাওলানা শিব্বীর আহমদ  

মাসিক আলকাউসার এপ্রিল ২০১৬

Last Updated : 12:48 PM 18 April 2016